মার্কেট – এর গোড়ায় গণ্ডগোল!

মার্কেট – এর গোড়ায় গণ্ডগোল!

মার্কেটিং বিষয়ক পরীক্ষার খাতায় শিক্ষার্থীরা যে বিষয়ে সবচেয়ে বেশি (কনফিডেন্টলি) ভুল কথাবার্তা লিখে সেটা হলো– ‘মার্কেট’! অনেক সময় একটা ব্যাচের অর্ধেকেরও বেশি শিক্ষার্থী হয় সংজ্ঞা না হয় ব্যাখ্যা অথবা উদাহরণ ভুল লিখে থাকে। ক্লাসে বিষয়গুলো অনেক সহজভাবে আলোচনা করার পরেও তারা ভুল করছে– বিষয়টা আমাকে বেশ ভাবনায় ফেলে দেয়।

গভীরভাবে চিন্তা করে দেখলাম– চারপাশে ‘মার্কেট’ শব্দটাকে এত বেশি অর্থে ব্যবহার করা হয় যে, তাদের ভুল হওয়াটাই স্বাভাবিক! কথাটা বিশ্বাস না হলে নিচের উদাহরণগুলো একটু মনযোগ দিয়ে দেখুন। মার্কেট শব্দের ব্যবহার সত্যিই বিস্ময়ের উদ্রেক করবে…

— শুক্রবারে নিউমার্কেট বন্ধ থাকে। (স্থান অর্থে)
— আজ চাউলের মার্কেট বেশ চড়া। (মূল্য অর্থে)
— ওপেন মার্কেটে (ওএমএস) চিনি ৪০ টাকা দরে বিক্রি করছে। (প্রক্রিয়া অর্থে)
— সরকার ব্ল্যাক মার্কেট বন্ধ করতে না পারলে দেশীয় চিনির চাহিদা বাড়বে না। (প্রবেশের পদ্ধতি অর্থে)

— এটা মার্কেটের সেরা টেলিভিশন। (প্রাপ্ত বিকল্পগুলো অর্থে)
— আমাদের নতুন পণ্যটা কেমন মার্কেট পাবে বলে মনে হচ্ছে? (ক্রেতা অর্থে)
— ‘আমরা মার্কেট নিয়ন্ত্রণ করতে চাই না’–এসইসি চেয়ারম্যান। (সার্বিক ব্যবস্থাপনা অর্থে)
— এই জমিটার মার্কেট প্রাইস কমপক্ষে এককোটি টাকা। (সম্ভাব্য ক্রেতারা প্রদান করতে আগ্রহী অর্থে)

একদিকে মানুষের মুখের ভাষা নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। আবার ক্ষণে ক্ষণে তার রূপ বদলায়। ফলে চারপাশের মানুষ যেভাবে ‘মার্কেট’ শব্দটা ব্যবহার করে মনের ভাব প্রকাশ করছে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হবার কিছু নেই। ভাষা চলবে তার নিজস্ব গতিতে–সেটাই স্বাভাবিক। তাহলে স্বভাবতই মনে প্রশ্ন জাগে–আমরা কোন অর্থটি গ্রহণ করব?

এই প্রশ্নের জবাব পেতে প্রথমেই ‘আমরা’ বলতে কারা– তা নির্ধারণ করা জরুরি। কারণ একেক পক্ষ বিষয়টাকে একেকভাবে বুঝে থাকে এবং ব্যবহার করে। এই সাইটে যেহেতু মার্কেটিং বিষয়ক শিক্ষার্থী ও প্র্যাকটিশনারদের লক্ষ্য করে লেখা হয় সেহেতু আমরা বলতে ‘মার্কেটার’ বুঝলে আলোচনার সুবিধা হবে।

এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো–আমরা মার্কেটিং বিষয়ক কোনো কিছু পড়ার সময় নিজেকে মার্কেটার হিসাবে কল্পনা করলে (ধরে নিলে) বিষয়গুলো বুঝতে অনেক সহজ হয়। কারণ প্রায় সকল বইপুস্তক সেই আঙ্গিকেই লেখা হয়। যাহোক, এবার মার্কেটার হিসাবে বুঝতে চেষ্টা করি–‘মার্কেট’ মানে কী?

ছোটবেলা থেকে শোনা এই শব্দের সবচেয়ে বেশি ব্যবহার চোখে পড়ে স্থান অর্থে (নিউমার্কেট, সপ্তপদী মার্কেট, সাহেব বাজার, কক্সবাজার)। সেজন্যই ছাত্রছাত্রীরা বইয়ে পড়া সংজ্ঞা মুখস্থ লিখেই উদাহরণে গিয়ে কোনো স্থানের নাম লিখে দেয়!

এবিষয়ে একটি ঘটনা না বললেই নয়– আমাদের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান মৌখিক পরীক্ষার সময় মার্কেটিং মেজরের শিক্ষার্থীদের কাছে প্রায়শ জানতে চাইতেন– ‘মদিনা মার্কেট’ কি মার্কেট? এই প্রশ্নে অধিকাংশ স্টুডেন্টই কনফিউজড হয়ে পড়ে। কারণ তারা মাঝেমধ্যেই আড্ডা দেয়, শপিং করে– ক্যাম্পাসের নিকটবর্তী মদিনা মার্কেটে। অথচ স্যারের প্রশ্ন করার ধরণ দেখে মনে হয়– উত্তরটা হবে নেতিবাচক!

শুধু শিক্ষার্থীরা নয় এবিষয়ে আমাদের এক সহকর্মী একদিন ভাইভা বোর্ড থেকে বেরিয়ে আমাকে বলল– স্যার, মদিনা মার্কেট একটা ‘মার্কেট’ হতে সমস্যা কোথায়? হেসে বললাম– কোনো সমস্যা নাই! তখন তিনি বললেন– তাহলে নজরুল স্যার কেন স্টুডেন্টদের এভাবে কনফিউজড করে ফেলেন? হয়তো সেই সহকর্মীটি ইতিমধ্যে সিদ্ধান্তে পৌঁছে গেছেন– তৎকালীন বিভাগীয় প্রধান নিজেই বিষয়টা ঠিকঠাক বুঝেন না (কারণ তিনি হিসাববিজ্ঞানের শিক্ষক)। আমি তার মনের অবস্থা বুঝে বললাম– প্রথমে আপনি আমাকে কয়েকটা প্রশ্নের জবাব দেন।

প্রথমত, তিনি কী এই প্রশ্নটা শুধুমাত্র মার্কেটিংয়ের শিক্ষার্থীদের করেন– নাকি সবাইকে (অ্যাকাউন্টিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইন্যান্স, এমআইএস, এইচআরএম)? তিনি বললেন– শুধুমাত্র মার্কেটিংয়ের শিক্ষার্থীদের। দ্বিতীয়ত, ক্লাসে আপনি যে সংজ্ঞা পড়ান– তার মূল কথা কী? জবাবে তিনি কটলার ও আর্মস্ট্রংয়ের বহুল ব্যবহৃত সংজ্ঞারই (The set of all actual and potential buyers of a product or service) প্রতিধ্বনি করলেন।

অর্থাৎ মার্কেট হলো– বর্তমান ও সম্ভাব্য ক্রেতাদের সমষ্টি! তৃতীয়ত, অনলাইনে যখন শপিং করেন (অথবা ক্রেডিট কার্ডে পেমেন্ট করে ভিডিও দেখেন) তখন মার্কেট (বা লেনদেনটা) ঠিক কোন জায়গায় বিদ্যমান থাকে? তিনি কিছুটা ভাবনায় পড়ে গেলেন। আবারো জানতে চাইলাম– ঢাকা শহরের এক বর্গকিলোমিটার আর খাগড়াছড়ির এক বর্গকিলোমিটার জায়গা কী একজন মার্কেটারের কাছে একই অর্থ বহন করে?

আমার সহকর্মী ইতিমধ্যে বুঝে ফেলেছে– আমি তাকে ঠিক কোথায় নিয়ে যাচ্ছি। তখন তিনি নিজ থেকেই বললেন– আসলেই তো কোনো স্থানের ওপর দখল পাওয়াতো মার্কেটারের লক্ষ্য নয়। বরং একটা পণ্য মার্কেট পাওয়া মানে ‘প্রত্যাশা মতো ক্রেতা পাওয়া’। আর এইটা যদি ধরতে ভুল হয় তবে সেগমেন্টেশন, টার্গেটিং, পজিশনিং বিষয়ে শেখা প্রায় সব তথ্যই এলোমেলো হয়ে যায়!

তার উপলব্ধি দেখে ভালো লাগল। পাশাপাশি এটাও বললাম– অর্থনীতির লোকেরা মার্কেটকে একটা প্রক্রিয়া হিসাবে দেখুক, সাধারণ মানুষ এটাকে স্থান হিসাবে দেখুক– কোনো সমস্যা নাই। কিন্তু একজন মার্কেটারের কাছে মার্কেট মানে– ক্রেতা! কারণ তার সকল চিন্তা আবর্তিত হয় ‘বর্তমান ও সম্ভাব্য ক্রেতা’দের প্রত্যাশা, সন্তুষ্টি ও পরিবর্তিত চাহিদাকে কেন্দ্র করে।

এমন অসংখ্য বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পেতে এই বইটি পড়ুন…

Follow Me

error

করোনা সতর্কতায় কোন ছাড় নয়, প্লিজ